অপ্রত্যাশিত সমস্যার জন্য দুঃখিত। একটু পরে আবার চেষ্টা করুন: NID Server error solution

সম্প্রতি নতুন ভোটাররা অনলাইন থেকে জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড করার জন্য অ্যাকাউন্ট রেজিস্টার করতে গিয়ে “অপ্রত্যাশিত সমস্যার জন্য দুঃখিত। একটু পরে আবার চেষ্টা করুন” এই ওয়ার্নিং দেখতে পাচ্ছে। আজকে জানবো এই অপ্রত্যাশিত সমস্যাটি কেনো হয় এবং কিভাবে এর সমাধান করতে হয়।

অপ্রত্যাশিত সমস্যার জন্য দুঃখিত – এই মেসেজটি মূলত ভোটার স্লিপের ফরম নাম্বার দিয়ে আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে গেলে ওয়ার্নিং আকারে দেখায়। Bangladesh NID Application System এর যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে এমনটি হতে পারে। আসা করছি খুব সিগ্রই এটি সমাধান হয়ে যাবে।

যে কারণেই এই সমস্যা হোক না কেনো, এখন নতুন ভোটারগণ তাদের NID Card অনলাইন থেকে ডাউনলোড করার উপায় বের করাই মূল বিষয়। অপ্রত্যাশিত সমস্যার জন্য দুঃখিত। একটু পরে আবার চেষ্টা করুন এটির সমাধানের জন্য বেশ খোজাখোজির পর সমাধান বের করতে সফল হয়েছি।

অপ্রত্যাশিত সমস্যার জন্য দুঃখিত দেখানোর কারণ

অপ্রত্যাশিত সমস্যার জন্য দুঃখিত। একটু পরে আবার চেষ্টা করুন এই ওয়ার্নিং সম্বলিত মেসেজটি সাধারণত নতুন নিবন্ধিত ভোটারদের জাতীয় পরিচয় পত্র বের করতে ফরম নাম্বার ব্যবহার করলে দেখায়। ফরম নাম্বারের পরিবর্তে এনাইডি নাম্বার দিলে কোন প্রকার সমস্যা হয় না।

এটি ছাড়াও অপ্রত্যাশিত সমস্যার জন্য দুঃখিত দেখানোর আরো কিছু কারণ থাকতে পারে। আইডি কার্ড অনলাইনে আসার আগেই তা অনলাইন থেকে বের করার চেষ্টা করা। কি কি কারণে এই ওয়ার্নিং দেখাতে পারে তা নিচে উল্লেখ করা হলো-

  • সার্ভারে NID online copy প্রস্তুত না হওয়া
  • NID Server Problem
  • ভুল তথ্য ইনপুট করা

নতুন জাতীয় পরিচয় পত্রের জন্য আবেদন করার কিছুদিন পরেই এনআইডি কার্ড অনলাইন থেকে ডাউনলোড করতে গেলে এই সমস্যা দেখাবে। যেহেতু আবেদনটি এখনো অনুমোদন হয়নি তাই অনালিনে NID Card আসার প্রশ্নই আসেনা।

এই জন্য আমাদের উচিত নির্বাচন কমিশনের নাম্বার ১০৫ থেকে আইডি কার্ড ডাউনলোডের মেসেজ আসার পর NID online copy বের করা।

বর্তমানে অধিকাংশ মানুষের অপ্রত্যাশিত সমস্যার জন্য দুঃখিত এই সমস্যাটি Services nidw gov bd ওয়েব সাইটের Server Problem জনিত কারণে হচ্ছে। আর নয়তো নির্বাচন কমিশন ইচ্ছাকৃত ভাবে NID Slip (ভোটার ফরম) দিয়ে আইডি কার্ড ডাউনলোড করা বন্ধ রেখেছে।

অপ্রত্যাশিত সমস্যার জন্য দুঃখিত সমস্যার সমাধান

ভোটার স্লিপ বা ফরম নাম্বার এর পরিবর্তে জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বার এবং জন্ম তারিখ ব্যবহার করলে অপ্রত্যাশিত সমস্যার জন্য দুঃখিত। একটু পরে আবার চেষ্টা করুন এই সমস্যাটির সমাধান করা যায়। এই সমস্যার সমাধানে এটিইএকমাত্র এবং কার্যকর পদ্ধতি।

nid server error problem solve

এখন প্রশ্ন হচ্ছে যারা নতুন ভোটার হয়েছে তারা তাদের আইডি কার্ডের নাম্বার কিভাবে জানবে! তাহলে চলুন ফর্ম নাম্বার দিয়ে আইডি কার্ডের নাম্বার বের করার নিয়ম সম্পর্কে জেনে নেই।

ফরম নাম্বার থেকে আইডি কার্ডের নাম্বার বের করার নিয়ম

ভোটার নিবন্ধন ফরম নাম্বার ব্যবহার করে জাতীয় পরিচয়পত্র বা এনআইডি কার্ডের নাম্বার বের করার বেশ কয়েকটি উপায় রয়েছে। তার মধ্যে সবথেকে কার্যকর পদ্ধতি হলো নির্বাচন কমিশন হেল্পলাইনে ফোন করে জেনে নেয়া।

  • হেল্পলাইনে ফোন করে
  • উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে
  • মোবাইলে SMS মাধ্যমে

ভোটার স্লিপ দিয়ে আইডি কার্ডের নাম্বার জানার জন্য কোন প্রকার ফি কিংবা টাকা দেয়ার প্রয়োজন হবে না। ফরম নাম্বার থাকলেই জাতীয় পরিচয়পত্রের নাম্বার বের করতে পারবেন।

নির্বাচন কমিশন হেল্পলাইনে ফোন করে NID Number বের করার নিয়ম

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন হেল্পলাইন নাম্বার হচ্ছে ১০৫, এখানে ফোন করে ভোটার স্লিপ দিয়ে নিজের আইডি কার্ডের নাম্বার জানতে পারবেন। জাতীয় পরিচয়পত্র সম্পর্কিত যেকোনো ধরনের সমস্যার সমাধান ও পরামর্শ পেতে নির্বাচন কমিশন হেল্পলাইনের বিকল্প নেই।

১০৫ নাম্বরে ফোন দেওয়ার পর কাস্টমার কেয়ার প্রতিনিধি কে আপনার এনআইডি কার্ডের নাম্বারটি জানাতে বলবেন। তখন তিনি আপনার নিবন্ধন স্লিপের ফরম নাম্বারটি ও প্রয়োজন হলে আরো কিছু তথ্য জানতে চাইবে। তারপর ভোটার তথ্য যাচাই করে আপনাকে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র নাম্বারটি জানিয়ে দিবে অথবা মোবাইলে এসএমএস পাঠিয়ে দিবে।

বাংলাদেশের যে কোন অপারেটর ( জিপি, রবি, বাংলালিংক, টেলিটক, এয়ারটেল ) থেকে নির্বাচন কমিশন হেল্পলাইন নাম্বার ১০৫ এ কল করা যায় বিনামূল্যে। মোবাইলের ব্যালেন্স ছাড়াই কাস্টমার কেয়ার প্রতিনিধির সাথে আপনার যে কোন সমস্যার কথা জানাতে পারেন।

NumberCall rateTime
105Free9:00 am
to
5:00 pm
nid helpline

অনেক অনেক মানুষ এই হেল্প লাইন নাম্বারে কথা বলার কারণে লাইন পেতে কিছুটা সময় অপেক্ষা করতে হয়। কখনো কখনো ৩০ মিনিট কিংবা তারও বেশি সময় অপেক্ষা করতে হয় হেল্পলাইন প্রতিনিধির সাথে কথা বলতে। বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন হেল্পলাইন সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানুন।

উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে এনআইডি নাম্বার সংগ্রহ

আপনার ভোটার নিবন্ধন ফরমটি সাথে করে স্থানীয় উপজেলা / থানা নির্বাচন কমিশন অফিসে চলে যাবেন। সেখানে দায়িত্বপ্রপ্ত কর্মকর্তার কাছে আপনার সমস্যার কথা উল্লেখ করে আইডি কার্ডের নাম্বর জনাতে চাবেন।

তারা তাদের ডাটাবেজ থেকে ভোটার স্লিপ অনুসারে আপনার আইডি কার্ডের নাম্বার বের করে জানিয়ে দিবে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে মুখে না বলে SMS করে আপনার মোবাইলে এনআইডি নাম্বার পাঠিয়ে দেয়া হবে। আর যদি আপনার আবেদনে কোন প্রকার ইস্যু থাকে তাহলেও সে সম্পর্কেও আপনাকে অবগত করা হবে।

মোবাইলে SMS মাধ্যমে জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম্বার বের করা

মোবাইল থেকে SMS দিয়ে জাতীয় পরিচয়পত্রের নাম্বার জানার জন্য প্রথমে মোবাইলের মেসেজ অপশনে যাবেন তারপর NIDFORM NODD-MM-YYYY ফরমেটে মেসেজ টাইপ করে সেটি 105 নম্বরে SMS পাঠাতে হবে।

১০৫ থেকে ফিরতি একটি মেসেজ আসবে সেখানে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের নাম্বার / NID Card Number উল্লেখ থাকবে। SMS এ আপনার ১০ ডিজিটের স্মার্ট এনআইডি কার্ড নাম্বার দেয়া থাকবে।

মনে করুন আপনার ফরম নাম্বার / স্লিপ নাম্বার NIDFN123456789 এবং জন্ম তারিখ 01 Jan 1990 তাহলে মেসেজ পাঠানোর ফরমেট ঠিক নিচের মতো হবে-

NID NIDFN123456789 01-01-1990

Send it to 105

উপরে দেখানো SMS ফরমেটটি অনুসারে মেসেজ পাঠিয়ে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বার জেনে নিতে পারেন। মেসেজ পাঠানোর পূর্বে আপনার নিজের ফরম নাম্বার এবং জন্মতারিখ লিখেছেন কিনা তা চেক করে নিতে ভুলো না।

মাঝে মাঝে 105 নাম্বারে সঠিক তথ্য দিয়ে মেসেজ পাঠালেও ফিরতি মেসেজ আসে না। তাই এই নিয়মটি সবার শেষে রাখা হয়েছে। তবে উপরে বর্ণিত দুটি নিয়ম ফলো করলে স্লিপ নাম্বার দিয়ে জাতীয় পরিচয়পত্রের নাম্বার জানতে পারবেন এটি 100% নিশ্চিত।

FAQ’s

অপ্রত্যাশিত সমস্যার জন্য দুঃখিত কেনো দেখায়?

বর্তমানে ভোটার স্লিপ বা ফরম নাম্বার দিয়ে একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করার সময় এই সমস্যাটি হচ্ছে। ওয়েবসাইটের সমস্যার কারনে এমনটি হতে পারে।

NID Account Registration error সমাধান করার উপায় কি?

ফরম নাম্বারের পরিবর্তে NID Card নাম্বার ব্যাবহার করে একাউন্ট তৈরির ক্ষেত্রে এই সমস্যাটি হয় না। তাই আজকের দেখানো নিয়ম অনুসারে আপনার আইডি কার্ডের নাম্বার জেনে তারপর রেজিস্ট্রেশন করুন।

Similar Posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

17 Comments

  1. NIDFN148936158 লেখার আগে কি NID এটা একবার লিখতে হবে? আপনার এইখানে দেখানো যেভাবে আছে ঠিক সেভাবে কি?

    নাকি শুধু NIDFN148936158 10-12-1990 এইভাবে লিখতে হবে?

  2. এনআইডি ফরম নাম্বার ও জন্ম তারিখ দিলে এনআইডি নাম্বারটা আপনি বের করে দিতে পারবেন? প্রায় ৬ মাস হলো আমার ৩ সন্তানের এক সাথে ভোটার নিবন্ধন হয়েছে। ২ জনের অনেক আগে মেসেজ আসলেও একজনের আসে নাই।মেসেজ/কল দিয়েও পাচ্ছি না।

  3. আমি একটা বিষয়ে জানতে চাচ্ছি দয়া করে রিপ্লাই দিলে অনেক উপকৃত হবো
    আমি আপনাদের পরামর্শ অনুযায়ী ইউনিয়ন পরিষদ থেকে দেওয়া স্লিপ মানে ফরম নাম্বার টা নিয়ে উপজেলা নির্বাচন অফিসে গেছি অনেক হয়রানির পর আমাকে বিস্তারিত কিছু না বলে বলতেছি নতুন করে ভোটার আইডি কাটের সমস্ত কাগজ আবার জমা দিতে হবে বরাবর এক বছর হচ্ছে কাগজ পত্র সব জমা নিয়ে আমার পিঙার পিন্ট ছবি চোখের পরীক্ষা সব কিছু নিয়েছে কিন্তু আমি এখনো আইডি কার্ড পাইনি ফরম নাম্বার টা আছে আমার কাছে প্লিজ পরামর্শ দিলে অনেক উপকৃত হবো।

    1. হয়তো আপনার আইডি কার্ডে কোনো প্রকার সমস্যা হয়েছে। উপজেলা নির্বাচন অফিস সেটি সবচেয়ে ভালো বলতে পারবে। তাদের পরামর্শ আনুসরণ করুন। আমারাতো বাহ্যিক তথ্য গুলো দিয়ে সহায়ত করছি মাত্র। আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রের সাথে কি ঘটেছে তা কেবল নির্বাচন আফিসের দায়িত্বপ্রাপ্তরাই ভালো বলতে পারবে।

  4. আমি আইডি কার্ডের তথ্য যাচাই এ ছবি দেখতে চাই। সেটা কোন ওয়েব সাইটে দেখা যাবে। দয়া করে সমাধান দিবেন!!

    1. এখন আইডি কার্ডের তথ্য যাচাই করার সব মাধ্যম বন্ধ আছে। নিজের আইডি কার্ড হলে Bangladesh NID Application System থেকে দেখতে পাবেন।