এক শব্দের নাম দিয়ে আর হবে না জন্ম নিবন্ধন

এক শব্দের নামে আর কোনো নতুন জন্ম নিবন্ধন করা যাবেনা। জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন কার্যালয় জন্ম নিবন্ধনের নামের ক্ষেত্রে নতুন নিয়ম চালু করেছে। এখন থেকে প্রত্যেক নতুন জন্ম নিবন্ধন করতে হলে ব্যক্তির নাম কমপক্ষে দুটি শব্দের হতে হবে।

পাসপোর্ট করতে এবং বিদেশে যেকোন কাজে ক্ষেত্রে ব্যক্তির নামের First Name এবং Last Name প্রয়োজন হয়। তাই যাদের নামে মাত্র একটি শব্দ রয়েছে তারা দেশে ও বিদেশে বিভিন্ন সেবা পেতে সমস্যায় পরতে হয়। পাসপোর্ট তৈরি এবং বিদেশে নাম সম্পর্কিত সমস্যা এড়াতে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

জন্ম নিবন্ধনে এক শব্দের নাম থাকায় যেসব সমস্যা হয়-

  • আইডি কার্ডের নামেও এক শব্দ
  • পাসপোর্ট করতে সমস্যা
  • ভিসা পেতে সমস্যা
  • বিদেশের মাটিতে সেবা পেতে সমস্যা

অধিকাংশ কাজে নামের প্রথম অংশ এবং শেষ অংশ লেখতে হয়, আর ডকুমেন্টে শুধু একটি শব্দে নাম থাকায় বিপাকে পরতে হয়। তাই পরে যাতে জন্ম নিবন্ধন সনদ সংশোধন করার ঝামেলায় না যেতে হয়, সেজন্য আগে থেকে সব কিছু ঠিক রাখা উচিত।

জন্ম নিবন্ধনের নামের ক্ষেত্রে নতুন নিয়ম

জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন কার্যালয়ের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. রাশেদুল হাসান জানান, এখন থেকে প্রতিটি জন্ম নিবন্ধন সনদে ব্যক্তির নাম কমপক্ষে দুই শব্দের হতে হবে। এক শব্দের নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধনের আবেদন করলে সেটি গ্রহন করা হবেনা এবং সেই আবেদন বাতিল করার কড়া নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

তিনি আরো বলে জন্মনিবন্ধন ব্যক্তির প্রথম ও প্রাথমিক নিবন্ধন। জন্মনিবন্ধন সনদ ব্যক্তির ও ব্যক্তির বাবা-মায়ের পরিচয় বহন করে। এ নিবন্ধনের ওপর ভিত্তি করে ব্যক্তিজীবনের পরবর্তী সব নিবন্ধন হয়ে থাকে। তাই শুধু ডাকনাম বা এক শব্দবিশিষ্ট নাম উল্লেখ করে জন্মনিবন্ধন করা যাবে না।

জন্ম নিবন্ধনে এক শব্দের নাম
এক শব্দের নানে হবে না জন্ম নিবন্ধন

বর্তমানে কামাল, জামাল, সখিনা, মর্জিনা এ ধরনের এক শব্দের নামে জন্ম নিবন্ধন সনদ ইস্যু করা হবে না। যেহেতু জন্ম নিবন্ধন সনদ ব্যক্তির প্রথম নাগরিক সনদ তাই শুরু থেকেই এটিকে নির্ভুলভাবে তৈরি করতে হবে। নামের ক্ষেত্রে দুই বা তিন শব্দের নাম ব্যবহার করতে হবে যেমন কামাল উদ্দিন, মোহাম্মদ জামাল মিয়া এই রকম করে নাম লিখতে হবে।

এই দিকে আমার ডাকনাম শ্রাবন তাই বলে জন্ম নিবন্ধনেও শুধু শ্রাবন নামটি ব্যবহার করা বোকামি ছাড়া কিছুই না। কারণ এই এক শব্দের নামের কারনে পরবর্তীতে আমার জাতীয় পরিচয় পত্র এই নামে হবে। তার ফলে পাসপোর্ট করতে এবং বিদেশে ট্রাভেলের ক্ষেত্রে সমস্যা হবে। তাই সমস্যা এড়াতে শুরুতেই আমি আমার জন্ম নিবন্ধনে শ্রাবন আহম্মেদ নাম ব্যবহার করেছি।

বাংলাদেশ জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধক কার্যালয়ের নির্দেশনা

নাগরিকের নামের কারনে যাতে পরবর্তী সময়ে সমসসায় না পরতে হয় সেজন্য জন্ম নিবন্ধনেই নাম ঠিকমতো নিবন্ধন করতে সবাইকে সচেতন হতে বলা হয়েছে। কারণ সবার সচেতনাই এই সমস্যার সমাধন করতে সবচেয়ে বড় ভুমিকা পারলন করবে।

এই বিষয়টি আরো কার্যকর ও বাস্তবায়ন করার লক্ষে রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. রাশেদুল হাসান জেলা প্রশাসক, উপজেলা নিরবাহী কর্মকর্তা এবং সিটি রপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের জন্ম নিবন্ধনে ব্যক্তির নাম কমপক্ষে দুই শব্দ নিশ্চিত করার নির্দেশনা দিয়েছেন।

তাই আমেদের উচিত জন্ম নিবন্ধনের আবেদন করার সময় সব তথ্য সঠিক ফিলাপ করা। বিশেষ করে নামের ক্ষেত্রে দুই বা তিন শব্দের নাম ব্যবহার করবো। আর একটি শিশু জন্মের ৪৫ দিনের মধ্যেই তার জন্ম নিবন্ধন করে ফেলা উচিত।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *