১০ সংখ্যার NID থেকে ১৭ সংখ্যার এনআইডি বের করুন

স্মার্ট আইডি কার্ড বিতরণ করার সময় পুরাতন ১৭ সংখ্যা এবং ১৩ সংখ্যার জাতীয় পরিচয় পত্র গুলো জমা নিয়ে নেয়া হয়। এর ফলে পরবর্তী সময়ে আমাদের পুরাতন লেমেনেটিং আইডি কার্ডের নাম্বার প্রয়োজন হলে একটু বিড়ম্বনায় পরতে হয়। আপনার কাছে থাকা ১০ সংখ্যার NID card থেকে ১৭ সংখ্যার এনআইডি নাম্বার বের করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত জানাতে চলেছি।

আপনি যেহেতু এই লেখাটি পড়ছেন তার মানে আপনার কোননা কোন কাজে আগের ১৭ সংখ্যার অথবা ১৩ সংখ্যার এনআইডি নাম্বারটি প্রয়োজন। আগের জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করে কাহজ পত্র করে থাকলে বর্তমান সমেয়ে যদি হালনাগাত অথবা ডকুমেন্ট যাচাই করার প্রয়োজন হয় তাহলে তাছাড়া আরো নানান কাজে পুরাতন ভোটার আইডি কার্ডের নাম্বার প্রয়োজন হয়ে থাকে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে-

  • সিম রিপ্লেস করতে (পুরাতন আইডি দিয়ে রেজিস্ট্রেশন হলে)
  • মোবাইল ব্যাংকিং তথ্য হালনাগাত
  • দলিল অনুসারে মালিকানা নিশ্চিত করনে

এছাড়াও যে সব কাজে পূর্বের আইডি কর্ড ব্যবহার করা হয়েছিলো সেসব ক্ষেত্রে কোন তথ্য যাচাই করন প্রয়োজন হলে Old NID Number প্রয়োজন হয়ে থাকে।

নতুন এনআইডি থেকে পুরাতন আইডি কার্ডের নাম্বার দেখুন

আপনার নতুন ১০ সংখ্যার এন আইডি কার্ড থেকে পুরাতন লেমেনেটিং করা ১৭ সংখ্যার অথবা ১৩ সংখ্যার নাম্বার বের করার জন্য NID কার্ডের পিছনে থাকা Bar Code স্ক্যান করতে হবে। বার কোড স্ক্যান হয়ে গেলে বেশ কিছু কোড দেখতে পাবেন। তার মধ্যে <pin></pin> টেগের মধ্যে যে সংখ্যা দেখতে পাবেন সেটাই আপনার পুরাতন এনআইডি কার্ডের নাম্বার।

১০ সংখ্যার NID থেকে ১৭ সংখ্যার এনআইডি নাম্বার

এই <pin> ট্যাগে ১৭ সংখ্যার নাম্বার থাকে যা আপনার পুরাতন আইডি কার্ডের নাম্বার। লক্ষ করলে দেখতে পারবেন নাম্বার গুলোর প্রথম চারটি সংখ্যা আপনার জন্ম সাল, এই ১ম চারটি ডিজিট বাদ দিয়ে বাকি ১৩টি ডিজিট আপনার ১৩ সংখ্যার জাতীয় পরিচয়পত্র নাম্বার।

স্মার্ট আইডি কার্ড থেকে লেমেনেটিং আইডি কার্ডের নাম্বার

প্রথম দিকে ভোটার আইডি কার্ডে তেরো সংখ্যার নাম্বার দেয়া থাকত, এর পরবর্তী আপডেটে NID Card নাম্বার সতেরো সংখ্যার করা হয়েছে। বর্তমানে স্মার্ট কার্ড অথবা অনলাই কপি সব ক্ষেত্রে দশ ডিজিটের এনআইডি নাম্বার অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

আপনার স্মার্ট কার্ড দিয়ে পুরাতন ভোটার কার্ডের নাম্বার জানতে স্মার্ট কার্ডের পেছনের পার্টে থাকা Bar Code স্ক্যান করুন। এটি স্ক্যান করার জন্য গুগল প্লে-স্টোর থেকে QR কোড স্ক্যানার ডাউনলোড করে নিন। তারপর অ্যাপটি ওপেন করে কোড স্ক্যান করুন।

সফল ভাবে স্ক্যান হয়ে গেলে আপনার পুরাতন এন আইডি কার্ডের নাম্বার, ইংরেজি অক্ষরে নাম এবং জন্ম তারিখ দেখতে পাবেন। আর <p>ID_Number</p> এর মধ্যে যে সংখ্যা গুলো থকবে তাই হচ্ছে পুরাতন লেমেনেটিং করা আইডি কার্ডের নাম্বার।

১৭ সংখ্যার NID Card নাম্বার

আমারা আমাদের পরিচয় পত্রের পেছনের অংশে থাকা QR কোডটি হয়ত সবাই লক্ষ করেছি। কিন্তু এটা স্ক্যান করলে যে আমাদের পুরাতন ১৭ ডিজিট কিংবা ১৩ ডিজিটের আইডি নাম্বার বের হয় সেটা হয়তো খুব কম মানুষের জানা।

আপনি যখন আপনার হাতে থাকা জাতীয় পরিচয় পত্রের পেছনের বারকোড স্ক্যান করবেন তখন কিছু টেক্সট দেখতে পাবেন। এই ট্যাক্সট গুলোর মধ্যে <p></p> এর মাঝে যে সংখ্যা গুলো থাকবে সেটি আপনার old NID number

১৩ সংখ্যার এনআইডি নাম্বার

১৭ সংখ্যার আইডি নাম্বারে জন্ম সাল যুক্ত থাকে অন্য দিকে ১৩ ডিজিটের মধ্যে থাকে না। তাই উপরের নিয়ম অনুসারে প্রথমে সতেরো ডিজিটের Old NID number বের করুন। তারপর প্রথম চারটি ডিজিট বাদ দিয়ে বাকি সংখ্যা গুলোই ১৩ সংখ্যার আইডি নাম্বার নির্দেশ করবে।

13 digits old nid

উপরের ছবিতে মার্ক করে দেখানো হয়েছে তেরো সংখ্যার আইডি কার্ডের জন্য কোন অংশটুকু নিতে হবে। আর যদি সতেরো সংখ্যার ID নাম্বার নিতে চান তাহলে প্রথম দিকের চারটি সংখ্যা সহকারে নিলে হয়ে যাবে।

আপনার আইডি দিয়ে কয়টি সিমNID দিয়ে কয়টি সিম চেক
অনলাইনে ভোটার তথ্যআইডি কার্ড যাচাই

১৭ সংখ্যার আইডি নম্বর কেন প্রয়োজন

কোন বিকাশ, রকেট ও নগদ একাউন্ট যদি পুরনো ১৭ সংখ্যার কিংবা ১৩ সংখ্যার আইডি কার্ড দিয়ে নিবন্ধন করা থাকে তাহলে সে একাউন্ট গুলোর তথ্য হালনাগাদ করার ক্ষেত্রে ১০ সংখ্যা নতুন জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর গ্রহণ করা হয় না। এর জন্য পূর্বের আইডি কার্ড প্রয়োজন হয়।

এমনকি আপনার হারিয়ে যাওয়া কোন সিম কার্ড (SIM Card) পুনরায় উঠাতে চাইলেও পুরাতন nid নাম্বার প্রয়োজন হবে। আপনার কাছে পুরাতন এনআইডি কার্ডের ফটোকপি বা ছবি থাকলে সেটি দিয়ে কাজ চালাতে পারবেন।

Similar Posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

10 Comments