ভোটার স্লিপ হারিয়ে গেছে? দেখুন কিভাবে আইডি কার্ড বের করবেন

নতুন ভোটার নিবন্ধন করেছেন কিন্তু জাতীয় পরিচয় পত্র হাতে পাওয়ার আগেই ভোটার স্লিপ / ফরম নাম্বার হারিয়ে গেছে। আপনিও যদি ভোটার স্লিপ হারিয়ে থাকেন তাহলে আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। ফরম নাম্বার হারিয়ে গেলে এনআইডি কার্ড বের করার নিয়ম জানবো।

আজকে আমরা জানতে চলেছি হারানো ভোটার স্লিপ পুনরায় কিভাবে পেতে হয় এবং ভোটার স্লিপ ছাড়াও অনলাইন থেকে ভোটার আইডি ডাউনলোড করার কৌশল সম্পর্কে।

নতুন জাতীয় পরিচয় পত্রের জন্য নিবন্ধন করা হলে প্রত্যেকে একটি ভোটার স্লিপ বা নিবন্ধন ফরম প্রদান করা হয়। এই নিবন্ধন স্লিপে একটি ফরম নাম্বার উল্লেখ থাকে এন আইডি কার্ড প্রস্তুত হলে এটি ব্যবহার করে NID Card Download করতে হয়।

অনেকেই অসাবধানতার কারণে এই ভোটার স্লিপটি হারিয়ে ফেলে। নির্বাচন কমিশন থেকে যখন আইডি কার্ড প্রদান করা হয় তখন এটি জমা দেওয়ার প্রয়োজন হয়। স্লিপ হারিয়ে ফেলার কারণে এনআইডি কার্ড সংগ্রহ করতে ঝামেলায় পরতে হয়। ভোটার স্লিপ না থাকার কারণে আইডি কার্ডটি অনলাইন হওয়া সত্ত্বেও ডাউনলোড করতে পারে না।

স্লিপ হারিয়ে গেলে আইডি কার্ড বের করার কৌশল

ভোটার স্লিপ হারিয়ে গেলে আইডি কার্ড বা জাতীয় পরিচয় পত্র বের করার কয়েকটি উপায় রয়েছে। একটু কৌশল অবলম্বন করলেই ফরম নাম্বার ছাড়াই আইডি কার্ড ডাউনলোড করা যায়। মাত্র ২ দিনে হারানো আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে নিয়মটি অনুসরণ করুন।

ভোটার স্লিপ ছাড়া এনআইডি কার্ড বের করার উপায় সমূহ-

  • ভোটার নাম্বার
  • NID Card এর নাম্বার
  • পুনরায় ভোটার স্লিপ সংগ্রহ করা

ভোটার স্লিপ হারিয়ে গেলে করণীয়

কারো ভোটার ফরম হারিয়ে গেলে ভোটার নাম্বার, আইডি কার্ডের নাম্বার অথবা পুনরায় ভোটার লিস্ট সংগ্রহ করে সেটি ব্যবহার করে আইডি কার্ড বের করতে ও ডাউনলোড করতে পারবে।

নতুন ভোটারদের জন্য ভোটের নাম্বার দিয়ে আইডি কার্ড বের করার কৌশলটি তেমন কার্যকর নয়। তবে এনআইডি কার্ডের নাম্বার এবং নতুন করে ভোটার স্লিপ সংগ্রহ করার কৌশলটি কার্যকরী।

আপনি হয়তো এতক্ষণে প্রশ্ন করে ফেলেছেন জাতীয় পরিচয় পত্র হাতে পাওয়ার আগেই আইডি কার্ডের নাম্বার কিভাবে জানবেন! এই লেখাটি আরেকটু ধৈর্য্য সহকারে পড়ুন তাহলে জানতে পারবেন আইডি কার্ড হাতে পাওয়ার আগেই এন আইডি কার্ডের নাম্বার জানার উপায়।

NID Card এর নাম্বার দিয়ে আইডি কার্ড বের করুন

আইডি কার্ড ডাউনলোড করার জন্য নিবন্ধন ফরম নাম্বার অথবা NID নাম্বার এই দুটির যেকোনো একটি এবং জন্মতারিখের প্রয়োজন। এখন আমাদের জানার দরকার যখনই জাতীয় পরিচয় পত্র অনলাইনে চলে আসবে তখনই যাতে আইডি কার্ডের নাম্বারটি জানতে পারি।

আর ঠিক এই কাজটি করে থাকে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন। যখনই আপনার আইডি কার্ডটি অনলাইন হবে তখনই আপনার মোবাইল নাম্বারে ১০৫ নাম্বার থেকে SMS পাঠিয়ে আপনার আইডি কার্ডের নাম্বার এবং অনলাইন থেকে আইডি কার্ডটি সংগ্রহ করার কথা জানিয়ে দেবে।

মেসেজের মধ্যে ভোটারের নাম, এনআইডি কার্ডের নাম্বার উল্লেখ করে আইডি কার্ড সংগ্রহ করার জন্য অনলাইন মাধ্যম অথবা উপজেলা নির্বাচন কমিশন অফিসে যোগাযোগ করার জন্য বলা হবে।

105 হতে প্রাপ্ত SMS থেকে ১০ সংখ্যার স্মার্ট আইডি কার্ডের নাম্বার সংগ্রহ করতে পারব। এখন এই আইডি কার্ডের নাম্বার এবং জন্ম তারিখ ব্যবহার করে খুব সহজে জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করতে পারবো।

হারানো NID স্লিপ পুনরায় সংগ্রহ করুন

ভোটার স্লিপ হারিয়ে গেলে সেটার আরেকটি কপি সংগ্রহ করার জন্য উপজেলা নির্বাচন কমিশন অফিসে যেতে হবে। নির্বাচন অফিসের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সাথে আপনার ভোটার স্লিপ হারানোর বিষয়টি বললে ব্যক্তি সনাক্তকরণের জন্য আঙ্গুলের ছাপ নিয়ে পুনরায় ভোটার স্লিপ প্রদান করবে।

নির্বাচন অফিসে যাওয়ার সময় সাথে করে অনলাইন জন্ম নিবন্ধন সনদ এবং পিতা-মাতার এটি কার্ডের ফটোকপি নিয়ে যাবেন। কিছু কিছু ক্ষেত্রে হারানো ভোটার নিবন্ধন ফরম পুনঃ মুদ্রণ করতে আবেদনকারীর জন্ম নিবন্ধন সনদ এবং পিতা-মাতার আইডি কার্ডের ফটোকপি চেয়ে থাকে।

আপনার হাতের ছাপ নিয়ে আপনার আবেদন ফরম খুঁজে বের করবে এবং আপনার নামের সাথে মিলিয়ে তা নিশ্চিত করবেন। তারপর ভোটার ফরমের নির্ধারিত অংশ প্রিন্ট করে আপনাকে প্রদান করা হবে। এভাবে হারানো এন আইডি কার্ডের লিভ নাম্বার পুনরায় সংগ্রহ করতে পারবেন।

Similar Posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

15 Comments

  1. আসসালামু আলাইকুম, আইডি কার্ড হাড়িয়ে গেলে আমার অনলােইনে রিই্স্যুর আবেদন করি 230+ভ্যাট প্রদানের মাধ্যমে এবং এতে সময়ও লেগে যায় 10/15 দিন। কিন্তু এমন একজন কে জানি যে , তাকে 220 টাকা দিলে সে 10মিনিটে শুধুমাত্র আইডি নম্বর দিয়ে (জন্ম তারিখ ছাড়া) আইডি বের করে দেয়

    1. আমাদের উচিত অফিসিয়াল নিয়ম আনুসারে কাজ করা। আমি আপনার কথায় একমত, যারা এ কাজ করে তাদের কাছে আইডি কার্ডের ফরমেট থাকে সেটার মধ্যে শুধু আইডি কার্ডের ইনফরমেনশন বসিয়ে তৈরি করে ফেলে। তবে আইডি কার্ডের পেছনে থাকা Bar Code স্ক্যান করলেই সব ধরা পরে যাবে।